বিশ্বের সর্বকনিষ্ঠ প্রধানমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন ফিনল্যান্ডের সানা মারিন

বিশ্বের সর্বকনিষ্ঠ প্রধানমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন ফিনল্যান্ডের ৩৪ বছরের সানা মারিন (Image: Reuters)

মাত্র ৩৪ বছর বয়সে বিশ্বের সর্বকনিষ্ঠ প্রধানমন্ত্রী হতে চলেছেন ফিনল্যান্ডের সানা মারিন।

গত সপ্তাহে দেশটির প্রধানমন্ত্রী আনটি রিনের পদত্যাগের পর ক্ষমতাসীন সোশ্যাল ডেমোক্রেটিক পার্টি নতুন প্রধানমন্ত্রী ঠিক করার জন্য সম্প্রতি বৈঠকে বসে। সেখানেই বর্তমান পরিবহন ও যোগাযোগ মন্ত্রী ৩৪ বছরের সানা মারিনকে নতুন ফিনিশ প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মনোনীত করা হয়।

প্রধানমন্ত্রী হিসেবে সানা মারিন বামপন্থী ও মধ্যপন্থী মোট পাঁচটি দল নিয়ে গঠিত জোট সরকারের নেতৃত্ব দেবেন। উল্লেখ করার মত বিষয়, বাকি চারটি দলের প্রধানও নারী এবং তাদের মধ্যে তিনজনেরই বয়স ৩৫ এর নীচে।

সানা মারিন হতে যাচ্ছেন ফিনল্যান্ডের ইতিহাসে তৃতীয় নারী প্রধানমন্ত্রী। আগামী সপ্তাহেই তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে প্রধানমন্ত্রী পদে শপথ নেবেন।

বর্তমানে বিশ্বের সর্বকনিষ্ঠ প্রধানমন্ত্রী হলেন ইউক্রেনের ৩৫ বছর বয়সী ওলেক্সেই হনচারুক। আর নারীদের মধ্যে সর্বকনিষ্ঠ নিউজিল্যান্ডের ৩৯ বছরের জেসিন্ডা আরডেন।

সানা মারিনের পরিচয়

সানা মারিনের জন্ম ১৯৮৫ সালে ফিনল্যান্ডের রাজধানী হেলসিংকিতে। মারিনের বেড়ে ওঠা তার মায়ের কাছে। তার পিছিয়ে পড়া পরিবারে মারিনই প্রথম বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সুযোগ পেয়েছিলেন।

তরুণ বয়সে সোশ্যাল ডেমোক্রেটিক পার্টিতে যোগদানের পর দ্রুতই সানা মারিনের রাজনৈতিক উত্থান ঘটতে থাকে। ২০১২ সালে মাত্র ২৭ বছর বয়সে টামপেরে শহরের মেয়র নির্বাচিত হন মারিন। ২০১৫ সালে নির্বাচিত হন সংসদ সদস্য। আর চলতি বছর জুনে মারিন নিযুক্ত হন ফিনল্যান্ডের পরিবহন ও যোগাযোগ মন্ত্রী হিসেবে।

কেন নতুন প্রধানমন্ত্রী?

এবছরের এপ্রিলে অনুষ্ঠিত ফিনল্যান্ডের সংসদ নির্বাচনে সর্বোচ্চ আসন পায় সোশ্যাল ডেমোক্রেটিক পার্টি। তবে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা না পাওয়ায় বামপন্থী ও মধ্যপন্থী কয়েকটি দলকে নিয়ে সরকার গড়ে তারা। প্রধানমন্ত্রী মনোনীত হন আনটি রিনে।

সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী রিনে ডাক বিভাগের কর্মীদের বেতন কমিয়ে আনার সিদ্ধান্ত নিলে দেশজুড়ে ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। আন্দোলন আর ধর্মঘটের ডাক দেয় ক্ষতিগ্রস্থরা। এর জেরে জোট সরকারের শরিকরাও সমালোচনা শুরু করলে পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নেন প্রধানমন্ত্রী।

এরপরই দেশটিতে নতুন প্রধানমন্ত্রীর খোঁজে তৎপরতা শুরু করে জোটের প্রধান শরিক সোশ্যাল ডেমোক্রেটিক পার্টি। সেই ধারাবাহিকতায় ফিনল্যান্ড তথা বর্তমানে গোটা বিশ্বের সবচেয়ে কম বয়সী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মনোনীত হলেন সানা মারিন। বিদায়ী প্রধানমন্ত্রী আনটি রিনে অবশ্য এখনও দলের নেতা হিসেবে দায়িত্ব পালন করে যাবেন।