রাশিয়ায় পরমাণু বিস্ফোরণের তেজস্ক্রিয়তা ধরা পড়ল নরওয়েতেও

রাশিয়ায় গত বৃহস্পতিবার ঘটা ক্ষেপণাস্ত্র ইঞ্জিন বিস্ফোরণের পর প্রতিবেশি নরওয়ের পরমাণু নিরাপত্তা সংস্থা জানিয়েছে, তারা দেশের উত্তরাংশের আকাশে তেজস্ক্রিয় আয়োডিনের উপস্থিতি সনাক্ত করেছেন। যদিও পরিমানে তা উদ্বেগজনক নয়।

রাশিয়ার সরকারি পরমাণু সংস্থা রোসাটাম শনিবার জানিয়েছিল, বৃহস্পতিবারের ঐ দূর্ঘটনায় তাদের পাঁচজন কর্মী নিহত হয়েছেন।

নরওয়ের পরমাণু নিরাপত্তা সংস্থা ডিএসএ জানিয়েছে, রাশিয়ার সীমান্তবর্তী এলাকা ভানহোভদে অবস্থিত তাদের বায়ু শোধন কেন্দ্রের পর্যবেক্ষণে সেখানকার বাতাসে তেজস্ক্রিয় আয়োডিন পাওয়া গেছে।

পর্যবেক্ষণে ব্যবহৃত বাতাসের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছিল এমাসের ৯ থেকে ১২ তারিখের মধ্যে। আর রাশিয়ায় দূর্ঘটনাটি ঘটেছিল তার একদিন আগে ৮ আগস্ট তারিখে।

আরো পড়ুন >   রাশিয়ায় পারামাণবিক ক্ষেপনাস্ত্র বিস্ফোরিত হয়ে পাঁচজনের মৃত্যু

নরওয়ের উত্তরাঞ্চলের বায়ু শোধনাগার কেন্দ্রগুলোর পর্যবেক্ষণে তেজস্ক্রিয়তা সনাক্ত করার ঘটনা বিরল নয়। নিয়মিত চালানো তাদের পরীক্ষায় বছরে গড়ে ছয় থেকে আটবার তেজস্ক্রিয় আয়োডিনের উপস্থিতি ধরা পড়ে। যদিও এর উৎস সম্পর্কে আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানা যায়না। তবে ধারণা করা হয়, সীমান্তবর্তী রাশিয়ার প্রশিক্ষণ ঘাঁটিগুলোতে চালানো ক্ষেপনাস্ত্রসহ বিভিন্ন অস্ত্র পরীক্ষার কারণে এই তেজস্ক্রিয়তা বাতাসে ছড়ায়। যদিও এখন পর্যন্ত এগুলোর কোনটিই বিপদসীমার মাত্রা ছাড়ায়নি।

বৃহস্পতিবারের দূর্ঘটনার পর ঘটনাস্থলের ৪৭ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত রাশিয়ার আরেক শহর সেভেরোদভিনস্কে তেজস্ক্রিয়তার মাত্রা স্বাভাবিকের চেয়েও ১৬ গুণ বেশি পাওয়া গেছে। অবশ্য সেই মাত্রাটিও মানব স্বাস্থ্যের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ নয়।

দূর্ঘটনায় আহতদের চিকিৎসা যারা দিয়েছেন, সেইসব ডাক্তার ও সেবাকর্মীদের রাজধানী মস্কোতে নিয়ে গিয়ে শারীরিক পরীক্ষা করানো হয়েছে।