Home মধ্যপ্রাচ্য করোনা ঝুঁকিতে মুসলিমদের হজ বুকিং পেছাতে বলল সৌদি আরব

করোনা ঝুঁকিতে মুসলিমদের হজ বুকিং পেছাতে বলল সৌদি আরব

(Image: Reuters)

বিশ্বজুড়ে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে এবছরের হজ আদৌ আয়োজন করা যাবে কিনা তা নিয়ে অনিশ্চয়তার জেরে সৌদি আরব মুসলিম সম্প্রদায়ের প্রতি আহবান জানিয়েছে হজে অংশগ্রহণের আনুষ্ঠানিকতা এখনই শুরু না করতে।

দেশটির হজ বিষয়ক মন্ত্রী মোহাম্মদ সালেহ বেনতেন এ প্রসঙ্গে বলেন যে সৌদি আরব হজে অংশ নিতে আগ্রহী দেশ-বিদেশের নাগরিকদের স্বাস্থ্যগত নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বিগ্ন। তিনি জনগণকে এখনই এসংক্রান্ত কোন আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন না করার আহবান জানান।

প্রতি বছরের মত এবারও জুলাই ও আগস্ট মাস জুড়ে সারা পৃথিবী থেকে মুসলমানদের হজ পালনের জন্য সৌদি আরবে সমবেত হওয়ার কথা রয়েছে। এবছর আনুমানিক ২ লক্ষ মুসলমান মক্কা ও মদিনার বিভিন্ন স্থান প্রদক্ষিণ করে বার্ষিক এই আয়োজনে অংশ নেবেন বলে ধারণা করা হচ্ছিল। ইসলাম ধর্ম মতে, আর্থিক ও শারীরিকভাবে সামর্থ্যবান যেকোন মুসলমানের জন্য জীবনে অন্তত একবার হজ পালন করা বাধ্যতামূলক।

এর আগে হজের পূর্বের অপর এক আনুষ্ঠানিকতা, যা ‘ওমরাহ’ নামে পরিচিত, করোনা ভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে বাতিল করে দেওয়া হয়। এই মূহুর্তে মক্কা ও মদিনায় কাউকেই ঢুকতে দেওয়া হচ্ছেনা। রাজধানী রিয়াদে প্রবেশেও রয়েছে নিষেধাজ্ঞা।

সৌদি আরবে এখন পর্যন্ত ১,৫৬৩ জনের শরীরে করোনা ভাইরাস সনাক্ত করা হয়েছে, প্রাণ হারিয়েছেন ১০ জন।

হজ বিষয়ক মন্ত্রী বলছিলেন, “ওমরাহ ও হজ পালনের সকল প্রস্তুতিই আমাদের রয়েছে। কিন্তু বর্তমান প্রেক্ষাপটে সারাবিশ্ব থেকে আগত অতিথি ও সৌদি নাগরিকদের রক্ষা করাই আমাদের অগ্রাধিকার। একারণেই আমরা আমাদের মুসলিম ভাইয়েরকে বলছি, হজের জন্য এখানে আসার আনুষ্ঠানিকতা এখনই শুরু না করে যতদিন পর্যন্ত পরিস্থিতি অনুকূলে না আসবে ততদিন অপেক্ষা করতে।”

তিনি আরও জানান যে সৌদি আরবের হজ দপ্তর ও স্বাস্থ্য দপ্তরের পক্ষ থেকে যেসব হোটেলে ওমরাহ পালনের জন্য আগতরা উঠেছেন সেগুলো নিয়মিত পরিদর্শন করা হচ্ছে। নিষেধাজ্ঞা আরোপের আগ পর্যন্ত যারা ওমরাহর আনুষ্ঠানিকতায় অংশ নিয়েছেন তাদেরকে এখনই বাড়ি ফিরে না গিয়ে কোয়ারেন্টাইনে থাকতে বলা হয়েছে।