হোমপেজ এশিয়া উধাও হওয়ার তিন সপ্তাহ পর আবার ফিরলেন কিম জং উন

উধাও হওয়ার তিন সপ্তাহ পর আবার ফিরলেন কিম জং উন

সার কারখানা উদ্বোধনের এই ছবি প্রকাশ করে কিম জং উনের গুরুতর অসুস্থতার গুজবের অবসান ঘটালো উত্তর কোরিয়া (Image: KCNA)

গুরুতর অসুস্থতার গুজবের অবসান ঘটিয়ে অবশেষে প্রকাশ্যে এলেন উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন। গত ২০ দিন ধরে তাকে দেখা যাচ্ছিলনা দেশটির কোন কর্মসূচিতেই। এমনকি রাষ্ট্রীয় সংবাদ মাধ্যমও তার সম্পর্কে কোন খবর প্রচার না করায় দৃঢ় হচ্ছিল গুজবের ভিত্তি।

শেষমেশ সেই রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমেই দেখানো হল কিম জং উনের ‘সাম্প্রতিক’ ছবি। উত্তর কোরিও নেতাকে ফিতা কেটে একটি সার কারখানা উদ্বোধন করতে দেখা যায় দেশটির রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা ‘কোরিয়ান সেন্ট্রাল নিউজ এজেন্সি’ (কেসিএনএ) প্রকাশিত আলোকচিত্রে।

এর আগে কিম জং উনকে সর্বশেষ কোন কর্মসূচিতে দেখা গিয়েছিল গত ১২ এপ্রিল। এরপর থেকেই তিনি একপ্রকার নিরুদ্দেশ ছিলেন।

এমনকি এর তিনদিন পর ১৫ এপ্রিল কিম জং উনের পিতামহ ও উত্তর কোরিয়ার প্রতিষ্ঠাতা কিম ইল সাংয়ের জন্মবার্ষিকীর দিনও রাষ্ট্রীয় কোন আয়োজনেই অংশ নিতে দেখা যায়নি তাকে। দেশটিতে ব্যাপক মর্যাদায় পালিত হওয়া এই দিনটির সকল কেন্দ্রীয় কর্মসুচীতে ২০১১ সালে ক্ষমতায় আসার পর থেকে নেতৃত্ব দিয়ে এসেছেন কিম জং উন।

মূলত তখন থেকেই জল্পনা ছড়াতে শুরু করে কিম জং উনের শারীরিক অবস্থা নিয়ে। বিভিন্ন সূত্রের বরাত দিয়ে কিমের হৃদযন্ত্রে অস্ত্রোপচার হওয়া, তার কোমায় চলে যাওয়া, মস্তিষ্ক বিকল হয়ে পড়া, কোন অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ কাজ না করার মত গুজব এমনকি পশ্চিমা সংবাদ মাধ্যমগুলোতেও প্রচারিত হতে থাকে।

এসব গুজবের প্রেক্ষিতে তার অবর্তমানে ভবিষ্যৎে কে উত্তর কোরিয়ার হাল ধরবেন তা নিয়েও বিশ্লেষণ পাল্টা বিশ্লেষণ চলতে থাকে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলোতে।

এই পরিস্থিতিতে প্রতিবেশী দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্টের কার্যালয় গত সপ্তাহে এক বিবৃতিতে জানায়, কিম জং উনের হৃদযন্ত্রে অস্ত্রোপচার হয়েছে ঠিকই, কিন্তু তার শারীরিক অবস্থা মোটেও গুরুতর নয়।

শেষ পর্যন্ত উত্তর কোরিয়ার গণমাধ্যম তাদের নেতার কর্মব্যস্ত ছবি প্রকাশ করে বার্তা দিল, কিম জং উন পুরোপুরি সুস্থ রয়েছেন।

দেশটির রাষ্ট্রীয় সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত আলোকচিত্রের বর্ণনায় বলা হয়, রাজধানী পিয়ংইয়ংয়ের উত্তরাঞ্চলে একটি সার কারখানার উদ্বোধন করেছেন কিম জং উন। এসময় দেশটির উচ্চপদস্থ আধিকারিকদের সাথে আরও উপস্থিত ছিলেন কিম জং উনের বোন কিম ইয়ো জং।

এতে আরও বলা হয়, কারখানা উদ্বোধনের সময় উপস্থিত জনতা চিৎকার করে তাদের শীর্ষনেতাকে স্বাগত জানায়। কিম তার ভাষণে কারখানার উৎপাদন ব্যবস্থায় সন্তোষ প্রকাশ করেন। তিনি দেশের খাদ্য উৎপাদনে সার কারখানাটি গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে বলে আশা প্রকাশ করেন।

এর আগে ২০১৪ সালের সেপ্টেম্বরেও একবার লম্বা সময়ের জন্য উধাও হয়ে গিয়েছিলেন কিম জং উন। দীর্ঘ ৪০ দিন পর মধ্য অক্টোবরে আবার ফিরে আসেন তিনি। সেসময় তাকে লাঠিতে ভর করে খুঁড়িয়ে হাঁটতে দেখা যায়। উত্তর কোরিয়া আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু না বললেও গোয়েন্দা সূত্রের বরাত দিয়ে প্রতিবেশী দক্ষিণ কোরিয়া জানায় সম্ভবত গোড়ালিতে অস্ত্রোপচার হয়েছে কিম জং উনের।