Home এশিয়া এবার করোনায় আক্রান্ত রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিনের মুখপাত্র

এবার করোনায় আক্রান্ত রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিনের মুখপাত্র

দিমিত্রি পেসকভ (Image: Reuters)

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভের শরীরে করোনা ভাইরাস সনাক্ত করা হয়েছে। তিনি বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। পেসকভ আজ নিজেই তার করোনায় আক্রান্ত হওয়ার খবর স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমকে জানান।

দিমিত্রি পেসকভ এমন এক সময়ে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হলেন, যার একদিন আগে প্রেসিডেন্ট পুতিন দাবি করেছিলেন, রাশিয়া করোনা সংক্রমণ কমিয়ে আনতে সক্ষম হয়েছে। তিনি দেশের কয়েকটি স্থানে চলমান লকডাউন শিথিলেরও ঘোষণা দিয়েছিলেন।

দিমিত্রি পেসকভের স্ত্রী, অলিম্পিকে আইস ড্যান্সিং প্রতিযোগিতার সাবেক চ্যাম্পিয়ন তাতিয়ানা নাভকার দেহেও করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া গেছে। নাভকা সংবাদমাধ্যমকে জানান, তাদের দু’জনের অবস্থাই সন্তোষজনক। তারপরও তারা হাসপাতালে ভর্তির সিদ্ধান্ত নিয়েছেন যাতে পরিবারের অন্য সদস্যরা সংক্রামিত হতে না পারেন। তাতিয়ানা নাভকার ধারণা, তার স্বামী পেসকভ তার কর্মস্থল থেকে করোনায় সংক্রামিত হয়েছেন।

৫২ বছর বয়সী দিমিত্রি পেসকভ ২০০৮ সাল থেকে প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের মুখপাত্রের দায়িত্ব পালন করছেন। অবশ্য পুতিনের সাথে তিনি কাজ করছেন গত দশকের গোড়া থেকেই। রাশিয়ার স্থানীয় সংবাদ সংস্থা জানাচ্ছে, করোনায় আক্রান্ত হওয়ার আগে দিমিত্রি পেসকভের সাথে প্রেসিডেন্টের সামনাসামনি শেষ দেখা হয়েছিল এক মাসেরও বেশি সময় আগে।

তবে রুশ প্রেসিডেন্টের দপ্তর ক্রেমলিনে কর্মরত সাংবাদিকরা জানিয়েছেন, সর্বশেষ ৩০ এপ্রিল ভ্লাদিমির পুতিনের এক বৈঠকে দিমিত্রি পেসকভ উপস্থিত ছিলেন। অবশ্য বৈঠকটিতে পেসকভসহ অংশগ্রহণকারীরা সশরীরে উপস্থিত ছিলেন, নাকি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যোগ দিয়েছিলেন তা জানা যায়নি।

রাশিয়ায় করোনা ভাইরাসের প্রকোপ বাড়ার পর থেকেই ৬৭ বছর বয়সী প্রেসিডেন্ট পুতিন সংক্রমণের ঝুঁকি এড়াতে টেলি-কনফারেন্সের মাধ্যমে বৈঠকসহ তার যাবতীয় কার্যক্রম পরিচালনা করছেন। মন্ত্রীসভার সদস্য ও উপদেষ্টাদেরকে তিনি ভিডিও কলের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় দিকনির্দেশনা দিচ্ছেন।

কয়েক মাস আগে প্রেসিডেন্ট পুতিন ২০৩৬ সাল পর্যন্ত তার ক্ষমতায় থাকার সুযোগ সৃষ্টি করে যে বিতর্কিত সংবিধান সংশোধন প্রস্তাব এনেছিলেন তার ওপরে গণভোট হওয়ার কথা ছিল গত মাসে। তবে উদ্ভূত করোনা পরিস্থিতির কারণে সেই গণভোট আয়োজন থেকে সরে আসতে হয়েছে পুতিনকে।

দিমিত্রি পেসকভের আগে রাশিয়ার আরও বেশ কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়েছেন। দেশটির প্রধানমন্ত্রী মিখাইল মিশুস্তিন গত ৩০ এপ্রিল ঘোষণা করেন তার শরীরে করোনা ভাইরাস সনাক্তের কথা। পরদিন নির্মাণ ও গৃহায়ণ বিষয়ক মন্ত্রী ভ্লাদিমির ইয়াকুশেভ করোনা সংক্রমণ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন। গত সপ্তাহে দেশটির সংস্কৃতিমন্ত্রী ওলগা লিউবিমোভা জানান, করোনায় আক্রান্ত হয়ে তিনি স্বেচ্ছা আইসোলেশনে রয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রী মিশুস্তিনের মুখপাত্র সোমবার জানিয়েছেন, একটি রাষ্ট্রীয় চিকিৎসাকেন্দ্রে প্রধানমন্ত্রীর পরিচর্যা চলছে এবং তার অবস্থার উন্নতি হচ্ছে।

রাশিয়ায় মঙ্গলবার পর্যন্ত ২৩২,০০০ জনের দেহে করোনা ভাইরাস সনাক্ত করা হয়েছে। এদের মধ্যে মারা গেছেন ২,১০০ জন। দেশটির স্বাস্থ্য দপ্তর জানাচ্ছে, বর্তমানে রাশিয়ায় প্রতিদিন গড়ে ১১,৬০০ জন নভেল করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছেন।